SS TV live
SS News
wb_sunny

এই মুহুর্তে

সোনারগাঁওয়ে বিএনপি নেতা শামীমের ছিনতাই চক্র ফের সক্রিয়

 


নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ছিনতাইকারী বিএনপি নেতা শামীমের নেতৃত্বে ছিনতাই চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। এ চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে সোনারগাঁয়ের বিভিন্ন এলাকায় ছিনতাই করে মানুষে নগদ অর্থ মোবাইল সেট ও সিএনজি অটোরিক্সা ছিনতাই করে থাকে। এতে করে মানুষ দিন দিন অসহায় হয়ে পড়েছে। শামীম বাহিনীর ছিনতাইয়ে কারনে অনেক অটোরিক্সা চালক নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন। পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে এ চক্রটি ছিনতাই কাজ চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ চক্রের হোতা শামীমের বিরুদ্ধে মতিঝিল, রূপগঞ্জ, আড়াইহাজার ও সোনারগাঁওসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

শামীম উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের মালিপাড়া গ্রামের নুরুল হকের ছেলে শামীমের নেতৃত্বে আনছর আলীর ছেলে মঞ্জু, সালাম মিয়ার ছেলে চন্দন, গোলজার ওরফে গুলুর ছেলে রুহুল আমিন,সুমন ওরফে টুন্ডা সুমন ও নুরুল ইসলাম ওরফে বাক্কু একটি সিন্ডিকেট করে মহাসড়ক ও এশিয়ান হাইওয়ে সড়কের বিভিন্ন স্পটে রাতে ও দিনের বেলায় মানুষের কাছ থেকে ছিনতাই করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছেন এলাকাবাসী। এছাড়াও সড়কের চলাচলরত বিভিন্ন অটোরিক্সা চালকদের কৌশলে নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে অজ্ঞান করে অটোরিক্সা ছিনতাই করে নিয়ে যায়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, সোনারগাঁয়ের জামপুর ইউনিয়নের মিরেরবাগ গ্রামের অটো চালক আশু মোলার হত্যাকান্ডের রহস্য এখনো উদ্ঘাটন করতে পারেনি পুলিশ। আশু মোল্লাকে হত্যা করে লাশ আড়াইহাজার এলাকায় ফেলে অটোরিক্সা নিয়ে পালিয়ে যায় হত্যাকারীরা। গত দুবছরে সোনারগাঁওয়ে এশিয়ান হাইওয়ের বিভিন্ন জায়গায় অটোরিকশা ছিনতাইয়ের ঘটনায় শামীম বাহিনীর প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ হাত রয়েছে বলে জানান এলাকাবাসী। 

বস্তল এলাকার আব্দুর রশিদ নামের এক যুবক জানান, দীর্ঘদিন ধরে এশিয়ান হাইওয়ে সড়কের বিভিন্ন স্থানে মানুষ ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে সর্বস্ব হারাচ্ছে। নগদ টাকা, স্বর্ণলংকার, মোবাইল সেট ও অটোরিক্সা ছিনতাই করে নিয়ে যাচ্ছে ছিতাইকারীরা। তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানাচ্ছি। কোবাগা গ্রামের সুলতান মিয়া জানান, রাতের বেলায় ছিনতাইকারী চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। রাতে চলাফেরা করতে ভয় হয়। কখন ছিনতাইকারীদের টার্গেট হয়ে লাশ হয়ে যাই। এ থেকে দ্রুত উত্তরণ চাই।

চরতালিমাবাদ গ্রামের মাছ ব্যবসায়ী মনির হোসেন জানান, রাতের শেষ ভাগে গাউছিয়া পাইকারী মাছ বাজারে মাছ কিনতে যাওয়ার পথে বাগবাড়িয়া কবরস্থান এলাকায় আমাদের ছিনতাইকারীরা অস্ত্র ঠেকিয়ে টাকা পয়সা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশ ও তালতলা ফাঁড়ি পুলিশের ছিনতাই নিয়ন্ত্রনে পুলিশ ব্যাপকভাবে কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান। কিন্তু পুলিশের সদস্য সংখ্যা স্বল্পতার কারনে তা পুরোপুরি ভাবে বাস্তবায়ন করা কঠিন হয়ে দাঁড়িয়ে বলে ও জানা যায়।

Tags

সাবসক্রাইব করুন!

সবার আগে নিউজ পেতে সাবসক্রাইব করুন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন