SS TV live
SS TV
wb_sunny

এই মুহুর্তে

থ্রী-হুইলার ছাড়াতে কথিত সাংবাদিকদের তদবিরে বেকায়দায় কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশ

 




সোনারগাঁ সময়ঃ মহাসড়কে থ্রী-হুইলার চলাচলের ওপর  হাই কোর্টের কঠোর নির্দেশনা রয়েছে। এই নির্দেশেনায় আইনি ব্যবস্থা অব্যহত রেখেছে কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশ।  বিশ্ব মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে ঢাকা-চট্রগ্রাম-সিলেট মহাসড়কে চলাচলে প্রতিদিন আটক করে যাচ্ছে থ্রী-হুইলার (অটো রিকশা, সিএনজি)। মহাসড়ক থেকে আটক থ্রী -হুইলারের বিরুদ্ধে কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশ যথাযথ আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করলেও কথিত সাংবাদিক ও (৮ম শ্রেণি পাশ) ব্যক্তি অনলাইন পোর্টাল সম্পাদক পরিচয়ে আটক থ্রী -হুইলার ছাড়িয়ে নিতে ওইসব কথিত সাংবাদিকদের তদবিরে বে-কায়দায় পড়েছে কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির সহ দায়িত্বে নিয়োজিত পুলিশ সদস্যরা।

এসব কথিত সাংবাদিকদের তদবির না শুনলেই অনলাইন  পোর্টালে পুলিশের বিরুদ্ধে কাল্পনিক    মিথ্য সংবাদ প্রচার করে পুলিশের ভাবমুর্তিসহ মানহানিকর অপপ্রচার করছে বলে কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনিরসহ একাধীক পুলিশ সদস্যের অভিযোগ। 

সোমবার (১২ জুলাই) দুপুরে  কাঁচপুর হাইওয়ে থানায় সরজমিনে গিয়ে  দেখা যায়, মহাসড়কে চলাচলরত আটককৃত যানবাহন থ্রি-হুইলার ছাড়িয়ে নিয়ে অনিবন্ধিত একটি অনলাইন পোর্টালের পরিচয়ে  একাধীক সাংবাদিক তদবির করছেন।  তাদের তদবিরে পুলিশ কর্ণপাত না করায় কাঁচপুর হাইওয়ে থানা  পুলিশের এক অফিসারের সঙ্গে বাক বিতন্ডায় জড়িয়ে গেছেন। অবশেষে ওই পুলিশ কর্মকর্তা বিরক্ত হয়ে বলেন, মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশনায় মহাসড়কে থ্রী হুইলার (বা তিন চাকার যানবাহন) নিষিদ্ধ করা হয়েছে। মহামান্য হাইকোর্টের  সেই নির্দেশে কার্যক্রর করতে পুলিশ সদর দপ্তর এক নির্দেশনায় মহাসড়কে থ্রী -হুইলার (বা তিন চাকার যান) পেলেই আটক করছেন হাইওয়ে পুলিশের সদস্যরা।  আটক এসব থ্রী-হুইলার যানবাহনের বিরুদ্ধে শাস্তি স্বরূপ ন্যূনতম দুই হাজার পাঁচ শত টাকা জরিমানা আদায়ের ধার্য করেছেন।  সেই সাথে ওই গুলোর ব্যাটারি খুলে ১৫ দিন পর ফিরিয়ে  দেওয়ার নির্দেশনা রয়েছে। কঠোর লকডাউনে গাড়ির মালিকরা আইন অমান্য করে মহাসড়কে চলাচলে  গত জুন মাসে ৯২৯ মামলা, ২৬ লাখ ৮১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তাছাড়া চলতি মাসে ১৫০ মামলা করেছেন হাইওয়ে পুলিশ। 

কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, করোনা সংক্রমণ  রোধে কঠোর বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে পুলিশ তৎপর রয়েছে। আইন অমান্য করলেই শাস্তির আওতায় আনা হচ্ছে। কিন্তু কথিত সাংবাদিকদের তদবির হাইওয়ে পুলিশ বিরক্ত হচ্ছে এবং আইনি ব্যবস্থা প্রয়োগে বেকায়দায় পড়তে হয়েছে। 
হাইওয়ে পুলিশ গাজীপুর রিজিওন পুলিশ সুপার (এসপি)  মো. আলী আহমেদ খান বলেন, মহাসড়কে থ্রী-হুইলার বা তিন চাকার যান  যেন, চলাচল না করতে পারে। এই জন্য সরকারের কঠোর নির্দেশনা রয়েছে। নির্দেশনা মেতাবেক মহাসড়কে থ্রী-হুইলার বা তিন চাকার যানবাহন  পেলেই আটক করার নির্দেশনা  দেওয়া হয়।   আটক যানবাহনের বিরুদ্ধে আর্থিক জরিমানার বিধান আরোপ করা হয়েছে। থ্রী-হুইলারের বিরুদ্ধে মামলা হলে কমপক্ষে ১৫ দিন আটক রাখার সময়  নির্ধারণ করে  দেওয়া হয়। জরিমানা পরিশোধের ১৫ দিন পর  আটক যানবাহন মালিকের জিম্মায় ফিরিয়ে দেয়ার বিধান রয়েছে। সরকারের আইন কানুন  কোনো ব্যক্তি যদি না বুঝতে না পারে। তারা গনমাধ্যম কমর্ী বলে আমার মনে হয় না। একজন গনমাধ্যম কমর্ী ন্যূনতম রাষ্ট্রের আইন  বুঝতে হবে।  

Tags

সাবসক্রাইব করুন!

সবার আগে নিউজ পেতে সাবসক্রাইব করুন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন