SS TV live
SS News
wb_sunny

এই মুহুর্তে

সোনারগাঁয়ে সিন্ডিকেট করে ৭০/৮০ টাকা কেজি দরে তরমুজ বিক্রি।

 


মোঃ মিঠু আহমেদঃ

কেজি দরে তরমুজ বিক্রি করায় চটেছেন ক্রেতারা। সিন্ডিকেট তৈরি করে এভাবে দাম বাড়িয়ে দিচ্ছেন সোনারগাঁয়ের কিছু অসাধু ব্যাবসায়ীরা। আর এতে ক্রেতাদের মধ্যে চরম অসন্তোষ ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। পাশাপাশি সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে বইছে সমালোচনার ঝড়।

রমজান আর বৈশাখের খরতাপের মতই আগুন লেগেছে তরমুজের বাজারে। চলতি সপ্তাহে খুচরা বাজারে এক কেজি তরমুজের দাম চলছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা কেজি। একদিকে চলছে করোনা মহামারিতে মানুষে আয় বাণিজ্যও কম তার মধ্যে তরমুজের দাম বাড়তি। এতে সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরেই থাকছে সুস্বাধু এ ফলটি। ফলটি সুমিষ্ট ও পানির চাহিদা পূরণ করায় গ্রীষ্মকালের গরমে তরমুজের চাহিদা থাকে আকাশ চুম্বি আর। ক্রেতাদের এ দুবর্লতাকে কাজে লাগিয়ে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা অতি লাভবান হওয়ার আশায় পিচ হিসেবে কিনে শহরের বিভিন্ন জায়গায় কেজিতে বিক্রি করছেন।

তরমুজ কিনতে আসা এক  ক্রেতা  জানায়, এর আগে তরমুজ আমরা পিচ হিসেবে কিনেছি। কিন্তু এবার বেশি টাকা লাভের আশায় কেজি দরে বিক্রি করছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা। এতো ভারি একটি ফল ছোট পরিবারের জন্য কিনতে গেলেও ৫ কেজির নিচে হয় না। তার মধ্যে ছোলায়ই হয় এক থেকে দের কেজি।

তিনি আরো জানায়, তরমুজের দাম কেজিতে ৭০/৮০ টাকা রাখা হচ্ছে। সাধারনের ক্রয়ের বাইরে চলে যাচ্ছে এ ফলটি। এ রকম অতি মুনাফা লোভীদের আইনের আওতায় আনা হোক। বিভিন্ন জেলায় কেজি দরে তরমুজ বিক্রি করায় ভ্রাম্যমাণ আদালত জরিমানা করা হলেও সোনারগাঁ উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়নি তেমন কোন পদক্ষেপ।

এ বিষয় সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও  আতিকুল জানান,সারাদেশের ন্যায় সোনারগাঁয়ে যে সমস্ত অসাধু ব্যবসায়ী কেজি দরে তরমুজ বিক্রি করে গরীব মানুষকে তরমুজ খাওয়া থেকে বঞ্চিত করছে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে। 


Tags

সাবসক্রাইব করুন!

সবার আগে নিউজ পেতে সাবসক্রাইব করুন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন