SS TV live
SS TV
wb_sunny

এই মুহুর্তে

মেঘনা গ্রুপের হাত থেকে কবরস্থান এর রাস্তা বাঁচাতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

 



সোনারগাঁও সংবাদদাতাঃ


মেঘনা গ্রুপ কতৃক জোরপূর্বক গোরস্তান, মাদরাসা, মসজিদ৷ ঈদগাহের যাতায়াতের রাস্তা সরকারি হালট নদি দখল ও জনগনকে গৃহবন্দী করার কারণে মানবাধিকার লঙ্ঘন করায় মানববন্ধন করা হয়েছে।


১৫ মার্চ সকালে সোনারগাঁও উপজেলার সামনে এ মানববন্ধন করেন উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের ঝাউচর, পূর্বকান্দারগাও ও পশ্চিম কান্দারগাও এলাকার গ্রামবাসী। 


এ ব্যাপারে এনাতুল্লাকাজী জানান, আমরা উপজেলা অফিসে অফারক হয়ে আসছি অনেক দপ্তরে দৌড়াদৌড়ি করেছি মেঘনা গ্রুপ কতৃক এ রাস্তাটি বহুদিন যাবত আমরা বিভিন্ন গ্রামের লাশ নিয়া যাইতাম চলাচল করতাম বিভিন্ন গ্রামের মানুষেরা এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করত। ২০১৯ সালের মাঝামাঝি অবস্থায় ওয়াল দেয়া শুরু করলো টিন সেট দিয়ে স্থাপনা শুরু করলো নেট দিয়ে বড় করে ১০ ফুট বেড়া দিলো। এটা নিয়ে আমরা বিভিন্ন দপ্তরে দৌড়াদৌড়ি করলাম। শেষ পর্যন্ত প্রশাসন সহযোগিতা করলো ইউএনও  সাব সরাসরি সরেজমিনে লোক পাঠিয়েছে আপাতত কাজ স্থোকিত করেন। আমার সার্ভিয়ার সাব, এসিলেন্ড সাব, নায়েব সাব সরেজমিনে দেখে একটা রিপোর্ট লিখলো গত বুধবার দিন আমি আসলাম আসার পর  মেঘনা গ্রুপের সিনিয়র অফিসার কার্তিক বাবুকে বললাম আপনি রাস্তা রেখে কাজ করেন কিন্তু আমাদের উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কথা অমান্য করে।  ৫ দিন পর্যন্ত এ রাস্তা বন্ধ করে রেখেছে তার জন্য আমরা আজ মানববন্ধন করতে বাধ্য হয়েছি। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর  কাছে আকুল আবেদন জানাই জনগনের সার্থে এ রাস্তাটি বহাল রাখা দরকার। 



ঝাউওচর গ্রামের মফিজুল ইসলাম জানান, আমাদের একটা দাবি এই সরকারি হালট মেঘনা গ্রুপ  দখল করে রেখেছে এই হালট যেন উনমুক্ত করে দেয়। আমার নিজের দেখা এই হালট দিয়ে আমাদের ৩ পুরুষ যাবত নদীপথে আনন্দবাজার হাটে যায় মানুষ এবং এলাকাবাসী চাউল ডাল বাশঁ মুলি নদীপথে ছাড়া গাড়িপথে আনা যায়না। এখন মেঘনা গ্রুপ এ রাস্তাটি বন্ধ করে দিছে। আমরা এলাকাবাসির গণস্বাক্ষর নিয়ে এসিলেন্ড অফিসে মামলা করি। মেঘনা গ্রুপ আমাদের এলাকায় আসাতে খারাপ হয়নি ভালো হইছে। নদী ভাঙন থেকে মুক্তি পেয়েছি। তাই বলে এই নয় মানুষের চলাচল সরকারি হালট জোরপূর্বক দখন করে নিবে। আমরা যখন দূরে কোথাও যাই মেঘমা গ্রুপের পন্য দেখে আমাদের মন ভরে যায় মানুষের কাছে বলি এটা আমাদের মেঘনা গ্রুপের পন্য। যখন বাড়িতে আসি আর ভালো লাগেনা মেইলের বিকট সাউন্ড শব্দের কারনে ঘুম হয়না। আমাদের জায়গায় সম্পদ সব মেঘনা গ্রুপেকে দিয়ে দিছি ইন্ডাস্ট্রি করার জন্য এখন আমাদের এই ছোট খাটো বিষয় গুলো ওনি দেখেনা কেন।  আমরাত বলিনা আমাদের রাস্তা করে দেন মাদ্রাসা,  স্কুল করে দেন তবে কেন আমাদের সরকারি সম্পত্তি হালট  জোরপূর্বক দখল করবে। এলাকাবাসীর দাবি সরকারি  হালট উন্মুক্ত  চায় । 


Tags

সাবসক্রাইব করুন!

সবার আগে নিউজ পেতে সাবসক্রাইব করুন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন