SS TV live
SS News
wb_sunny

এই মুহুর্তে

কেন্দুয়া নদী রক্ষায় এলাকাবাসীর মানববন্ধন

 



সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি 


প্রায় শতাব্দী সময় ধরে উম্নুক্ত থাকা সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বড়দল গ্রাম সংলগ্ন কেন্দুয়া নদী এখন ইজারাদারদের দখলে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।


জানা গেছে, রবিবার বেলা ১১টায় কেন্দুযা নদী সংলগ্ন মাঠে ইজারাপ্রথা বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন এলাকাবাসী।


পরে সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন-এর কাছে স্মারকলিপি দেন তাঁরা।


বড়দল গ্রামের বাসিন্দা আওয়ামীলীগ নেতা সানজব উস্তার জানান, কেন্দুয়া নদীকে ইজারামুক্ত করতে ১৯৯৮ সালের ৫ই ফেব্রুয়ারি গ্রামের কৃতিসন্তান উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এডভোকেট আব্দুল গফ্ফার ও একই গ্রামের সুনামগঞ্জ জেলা তৎকালীন সিভিল সার্জন প্রয়াত হারিছ উদ্দিন তৎকালীন জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছিলেন পরবর্তীতে একই বছরের ৬ সেপ্টেম্বর কেন্দুয়া নদীকে উম্মুক্ত ঘোষণা করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)।


তিনি আরো বলেন, দীর্ঘ ২২বছর ইজারামুক্ত ছিল এই নদীটি। তবে ২০২০ সালের শুরু থেকে কলাগাঁও মৎসজীবি সমিতির নামে গোলাঘাট বিল ইজারাপ্রাপ্ত হয়। পরিবর্তিতে সাব- ইজারা দেওয়া হয় উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের পৈলনপুর গ্রামের মৃত রহিছ উদ্দীনের ছেলে একিনুর, একই গ্রামের জীবন চন্দ্র তালুকদারের ছেলে ঝুমুর চন্দ্র তালুকদার গংদের নামে। তারা গোলাঘাট বিল শাসনের পাশাপাশি কেন্দুয়া নদীতে অবৈধভাবে মৎস্য আহরণ শুরু করেন। ফলে একদিকে জীব বৈচিত্র্য নির্মুলে ধ্বংস অন্যদিকে নদীকে পানি শূন্য করতে পায়তারা চালিয়ে যাচ্ছেন এই ইজারাদার গংরা। তাই নদীকে বাঁচাতে আমরা গ্রামবাসী দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ চালিয়ে যাচ্ছি। স্পর্শকাতর এই বিষয়টি নিয়ে মাননীয় সাংসদ-এর কাছে আজ রবিবার(৭ই মার্চ) স্বারকলিপি প্রধান করেছি।


মানববন্ধনে এলাকাবাসীর পক্ষে বক্তব্য রাখেন, বড়দল গ্রামের বাসিন্দা আওয়ামীলীগ নেতা সানজব উস্তার, হাওর পারের কবিখ্যাত মোছায়েল আহমদ, একই গ্রামের বাসিন্দা মাটিয়ান হাওর উন্নয়ন কমিটির সাধারন সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, সাবেক ইউ/পি সদস্য শামায়ুন মিয়া, আওয়ামীলীগ নেতা মাসুক মিয়া, উজ্জল মিয়া, আব্দুল্লাহ মিয়া প্রমুখ।


Tags

সাবসক্রাইব করুন!

সবার আগে নিউজ পেতে সাবসক্রাইব করুন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন