SS TV live
youtube
wb_sunny

এই মুহুর্তে

গাইবান্ধার জমি জবর দখলের চেষ্টায় সন্ত্রাসী হামলা মারপিট ভাংচুর আহত ২

 

আদালতের চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বিবাদী কর্তৃক




গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধা বিজ্ঞ সিনিয়র জজ আদালতের চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বিবাদী কর্তৃক গাইবান্ধার জমি জবর দখলের চেষ্টায় সন্ত্রাসী হামলা মারপিট \ ভাংচুর আহত ২।


আহত সূত্রে জানা যায়, গাইবান্ধা সদর উপজেলার ৩নং ওয়ার্ড শাপলা মিল সংলগ্ন দক্ষিণ ধানঘড়া গ্রামে জমি-সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ২৭ ডিসেম্বর দুপুর অনুমান সাড়ে ১২ টার সময় সন্ত্রাসী প্রতিপক্ষ মমিন, মোহন ও তাদের সহযোগী কর্তৃক জমি জবর দখলের উদ্দেশ্যে সন্ত্রাসী হামলা মারপিট চালিয়ে আশরাফুল ও আরিফকে গুরুতর রক্তাক্ত আহত করে ও বাড়ী ঘর ভাংচুর করে ৪০ হাজার টাকা লুটপাট করে নিয়ে যায়। 

এ ব্যাপারে আছিয়া বেগম জানায় জমি দখলকারী ভূমিদুস্য সন্ত্রসী মমিন মিয়া, মোহন মিয়া, ময়নুল ইসলাম, আশিক মিয়ারদের সহিত বেশকিছুদিন থেকে জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। ঐ বিরোধের জের ধরে ২৭ ডিসেম্বর সাড়ে ১২ টার সময় নাম লিখিত সন্ত্রাসীরাসহ আরও অজ্ঞাতনামা ৫/৬ লাঠি-সোডা দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে দখলীয় জমিতে এসে উপর্জপরী হামলা মারপিট চালায় এবং ২৫ হাজার টাকার মালামাল ক্ষতিসাধন করে। বর্তমানে গুরুতর আহত আশরাফুল ও আরিফ গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। এ ব্যাপারে আহতদের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। 

এ দিকে উক্ত ভূমিদুস্যতা সন্ত্রাসী কার্যকলাপের বিষয়ে সচেতন ব্যক্তিদের মনে মিশ্র প্রতিক্রীড়া সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে টান-টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেকোন মহুর্তে আরও বড় ধরনের ঘটনা রক্তপাত ঘটতে পারে বলে এলাকাবাসীর ধারনা। 

উল্লেখ্য প্রকাশ, উক্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে আহত পক্ষরা ২০১৩ইং সালে ফৌঃ কার্যবিধি ১৪৪/১৪৫ ধারা মোতাবেক অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ৬৯০/২০১৩ পিটিশন মামলা দায়ের করে। বিজ্ঞ আদালত তদন্ত সাপেক্ষে উভয় পক্ষের কাগজপত্র পর্যালোচনা করে নালিশী জমি বাদীগণের দখলে আছে মর্মে উল্লেখ করিয়া বাদী পক্ষের ফৌঃ কার্যবিধি ১৪৪ ধারা প্রসেডিং চুড়ান্ত করেন। সন্ত্রাসী দাঙ্গাবাজ বিবাদী পক্ষ বাদী পক্ষকে উপর্যপুরি এসে বসতবাড়ী জবর দখলের হুমকে দেয় এবং দখলের চেষ্টা চালায় এবং ব্যর্থ হয়। এ ব্যাপারে ২০১৬ সালে বিজ্ঞ সদর সিনিয়র জজ আদালতে উক্ত সন্ত্রাসী বিবাদীদের বিরুদ্ধে অন্য ১৭৩/১৬ নং একটি চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার মামলা দায়ের করলে বিজ্ঞ আদালত সন্তোষ্ট হয়ে বাদীগণের পক্ষে ডিক্রী প্রদান করে এবং বিবাদীদেরকে নালিশী তপশীল ভূক্ত জমিতে প্রবেশ করতে চিরস্থায়ীভাবে বারিত করেন। 

Tags

সাবসক্রাইব করুন!

সবার আগে নিউজ পেতে সাবসক্রাইব করুন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন