SS TV live
SS TV
wb_sunny

এই মুহুর্তে

সোনারগাঁওয়ে করোনাযোদ্ধা হিসেবে প্রশংসনীয় যারা!! সোনারগাঁও সময়।।


রুবেল মিয়া, সোনারগাঁও সময়ঃ  নারায়ণগঞ্জকে করোনার হটস্পট উল্লেখ করার শুরু থেকেই সোনারগাঁ উপজেলায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জনসচেতনা বৃদ্ধিতে অবিরাম  ছুটে চলেছেন স্থানীয় এমপি, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক ও সোনারগাঁয়ে কর্মরত প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ। লকডাউন ঘোষিত হওয়ার পর থেকেই কর্মহীন, গৃহবন্দী,অসহায় মানুষের জন্য খাদ্য সামগ্রী সহায়তা, স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও আইন শৃঙ্খলা নিশ্চিত করণে এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা, সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আল মামুন ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক ইঞ্জি.মাসুদুর রহমান মাসুম নির্বিঘ্নে ছুটে চলছে পুরো উপজেলার প্রতিটি গ্রামে, পাড়া, মহল্লায়। 


বৈশ্বিক দূর্যোগ মোকাবিলায় স্থানীয় এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা  উপজেলার জনসচেতনতা , ফ্রী এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস, লডডাউনে থাকা পরিবারের জন্য খাদ্য সহায়তা এবং করোনা রোগীদের জন্য বিশেষ সেবা এবং মধ্যবিত্ত পরিবারের জন্য খাদ্য সহায়তা প্রদানের জন্য হটলাইন ব্যবস্থা চালু করে প্রশংসিত হয়েছেন সর্বমহলে।

এদিকে জনগনের সেবায় নির্বিঘ্নে কাজ করে গেছেন সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম ও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভুমি) আল মামুন এবং উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা পলাশ কুমার সাহা।
তাদের প্রত্যক্ষ নেতৃত্বে উপজেলা, স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসনের কার্যক্রম প্রশংসিত হয়ে উঠছেন পুরো  উপজেলাবাসীর কাছে। সোনারগাঁয়ে প্রশাসনের সহযোগিতায় সরকারি, বিভিন্ন ব্যক্তি ও সামাজিক সংগঠণের মাধ্যমে কর্মহীন পরিবারে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়েছে। সেচ্ছাসেবী সংগঠন  তৈরি করে হটলাইন ব্যবহার মাধ্যমে দিনে রাতে পৌছে দিয়েছে খাদ্যসামগ্রী । সম্পন্ন করেছে করোনা উপসর্গ বা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া মৃত্য ব্যক্তিদের দাফনকার্য।


এ ছাড়া এলাকাভিত্তিক হাট বাজারে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচলের নির্দেশনার সাথে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে মনিটরিং  করেছেন সব সময়। 
অন্যদিকে গ্রাম পর্যায়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ে কর্মরত ডাক্তার, স্বাস্থ্যকর্মী ও কমিউনিটি ক্লিনিকের কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইটারদের মাধ্যমে সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যহত রয়েছে বলে জানা গেছে।
মহামারি করোনা যুদ্ধেও এলাকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষার্থে সোনারগাঁও থানার ওসি মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে নিরলসভাবে কাজ করে যাওয়া পুলিশের ভূমিকাও প্রশংসিত।

অপরদিকে মানবতার ফেরিওয়ালা খ্যাত সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক ও পিরোজপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইঞ্জি. মাসুদুর রহমান মাসুম করোনার প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই করোনাযোদ্ধা হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন নির্বিঘ্নে।  ফলে আলোচিত হয়েছেন সর্বমহলে পেয়েছেন মানবতার ফেরিওয়ালা হিসেবে খ্যাতি।
 প্রতিদিন উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত নিজেকে রেখেছেন মানব সেবার  নিয়োজিত । তিনি তার নিজ ইউনিয়ন সহ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে নিজ অর্থায়নে প্রায় ২৫ হাজার পরিবারে পৌছে দিয়েছেন খাদ্য সহায়তা। প্রধানমন্ত্রীর উপহারসামগ্রী স্থানীয় ইউপি সদস্যদের সাথে নিয়ে করেছেন নিজ হাতে বিতরণ। সোনারগাঁ পুলিশ প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, সাংবাদিক ও স্বেচ্ছাসেবকদের স্বাস্থ সুরক্ষায় পিপিই উপহার দিয়েছেন। 
এছাড়াও মানবতার এই ফেরিওয়ালা অর্থের অভাবে গত ৫ মে সদ্যভুমিষ্ট সন্তান বিক্রি করতে চাওয়া এক মা ও তার ৪ সন্তানের  নিয়েছেন সার্বিক দায়িত্ব। 

স্থানীয়রা জানান, আমাদের স্থানীয় সাংসদ ও মানবদরদী ইঞ্জিনিয়ার মাসুম চেয়ারম্যান নিজের জীবনের নিশ্চয়তার কথা না ভেবে যেভাবে দিন রাত এক করে মানবসেবায় কাজ করে যাচ্ছেন তাদের কাছে সোনারগাঁওবাসী কৃতজ্ঞ থাকবে। সেই সাথে  ইউএনও, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা, এসিল্যান্ড ও ওসি তারা সরকারি কর্মকর্তা হয়েও মানব সেবায় ও সামাজিক কর্মকাণ্ডে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছেন। তারা আসলেই সোনারগাঁওয়ের করোনাযোদ্ধা। তাদের কাছে চিরকাল ঋণী হয়ে থাকবে পুরো সোনারগাঁওবাসী।।

Tags

সাবসক্রাইব করুন!

সবার আগে নিউজ পেতে সাবসক্রাইব করুন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন