SS TV live
youtube
wb_sunny

এই মুহুর্তে

কায়সার,কালাম ও মোশারফের নেতাকর্মীদের একত্মা ঘোষনা

২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা দিবসে কায়সার,কালাম ও মোশারফের নেতাকর্মীদের একত্মা ঘোষনা

 সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরনে প্রতিবাদ সভা,দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত।

বুধবার(২১শে আগষ্ট)বিকালে উপজেলা যাদুঘরের সামনে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুলতান আহমেদ মোল্লা বাদশা’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামীলী ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাহফুজুর রহমান কালাম।
এসময় মাহফুজুর রহমান কালাম তার বক্তব্যে বলেন, আগষ্ট মাস বাঙ্গালির জাতি এক কলঙ্কিত অধ্যায়, ইতিহাসে যে অধ্যায় সৃষ্টি করেছিল জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে হত্যা দিয়ে,যারা এ কলঙ্কের রচনা করেছেন, আজকে কিন্তু তারা তৎপর ,তাদের এ তৎপরতা আজ ও কিন্তু বিধ্যমান,আজকে তারা লেবাস পাল্টিয়ে আওয়ামীলীগের সাথে ডুকে আওয়ামীলীগকে নিঃশেষ করার ষড়যন্তে লিপ্ত রয়েছে কিন্তু তারা ষড়যন্তে সফল হবে না,অতএব সকলকে সজাক থাকতে হবে।
এ আগষ্ট মাসে বাংলাদেশের আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আমাদেরকে বলেছেন আগষ্ট মাস আসলেও ষড়যন্ত শুরু হয়ে যায়,কাজেই সকলে চোখ কান খোলা রাখতে হবে,সকলে চোখ কান খোলা রেখে সেই ষড়যন্তের মোকাবেলা করতে হবে।আজকে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল,তারা চেয়েছিল এই বাংলাদেশকে একটি অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিনত করতে, তারা চেয়েছিল এই দেশকে জঙ্গীবাদে পরিনত করতে। কিন্তু আল্লাহ রহমতে এই আগষ্ট মাসে ১৫ তারিখে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেএী শেখ হাসিনাকে আল্লাহ তায়ালা বাঁচিয়ে রেখেছিলেন এই দেশকে একটি সমৃদ্ধশীল জাতী হিসেবে গড়ে তুলতে ,বঙ্গবন্ধুর যে স্বপ্ন সেই স্বপ্নের সোনার বাংলা লক্ষ্যে জননেএী শেখ হাসিনাকে আল্লাহ রাব্বুল আল-আমিন নিজ হাতে বাঁচিয়ে রেখে ছিলেন।জননেএী শেখ হাসিনা এই বাংলার মাটিতে আসার পর এই পর্যন্ত ৪০ বার হত্যা করার চেষ্টা করেছিল,আপনারা জানেন ২১শে আগষ্ট এর কথা,২০০৪ সালে ২১শে আগষ্ট সেদিন সন্ত্রাস এর বিরুদ্ধে জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে কথা বলতে গিয়ে আমার নেএীকে গ্রেনেট মারা হয়েছিল,সেই গ্রেনেট থেকেও আল্লাহ রাব্বুল আল-আমিন জননেএী শেখ হাসিনা নাকে বাঁচিয়ে রেখেছিলেন,শেখ হাসিনা সেদিন রক্ষা পেয়েছিলেন বলেই আজ দেশ এতো এগিয়ে যাচ্ছে, আজকে জননেএী শেখ হাসিনার নেতৃতে বাংলার মাটিতে বঙ্গবন্ধুর হত্যা কারিদের বিচার হয়েছে, বঙ্গবন্ধুর হত্যা কারিদের ফাঁসি হয়েছে,আজকে যুদ্ধা অপরাধীদের ফাঁসি হয়েছে,তাই দেশ আজকে সমৃদ্ধশীল জাতী হিসেবে প্রতিষ্টিত হয়েছে,আজকে এই দেশ মধ্য আয়ের দেশ হিসেবে বিশ্বের দরবারে প্রতিষ্টিত হয়েছে।তিনি আরও বলেন,অতীতে কি হয়েছে সেটা আমাদের আর দেখার দরকার নাই। মোগরাপাড়া পাড়ায় আওয়ামীলীগকে রাখতে হলে নিজেদের ঐক্যের বিকল্প নাই। তাই আজ থেকে আমরা ভেদাভেদ ভুলে আগামী দিনের জন্য একটি সুন্দর আওয়ামীলীগ পরিবার গড়বো।
এ লক্ষ্যে আজ ২১ তারিখে গ্রেনেট হামলা দিবস উপলক্ষে নেতাকর্মীদের সাথে মত বিনিময় সভায় কায়সার, মোশারফ হোসেন ও কালামের নেতাকর্মীরা একত্মা ঘোষনা করে আগামীকাল থেকে পুরো উপজেলায় শোডাউন করে বিভিন্ন সভা সমাবেশে অংশ গ্রহন করবেন বলে ঘোষনা দেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন,জেলা পরিষদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান মাসুম,সনমান্দি ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ইসাক মোল্লা,এডভোকেট ফজলে রাব্বি,সনমান্দি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সাহাবুদ্দিন সাবু,বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি আজিজুল ইসলাম মুকুল,উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নু,উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম রবিনসহ আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।

Tags

সাবসক্রাইব করুন!

সবার আগে নিউজ পেতে সাবসক্রাইব করুন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন