শিবগঞ্জের মোকামতলায় অজ্ঞাতানা যুবকের মৃত দেহ উদ্ধার



শেখর চন্দ্র সরকার বগুড়া জেলা প্রতিনিধি ঃ

আধুনিকতার ছোঁয়ায় মানুষ কি দিন দিন হিংস্র হয়ে উঠছেন!! যে মানুষ আল্লাহর শ্রেষ্ঠ সৃষ্টি সেই মানুষের মাঝে নেই মনুষত্ব বিবেক পরপারের চিন্তা স্বার্থন্বেষী মানুষ পৃথিবীতে কিনা করতে পারে। বিকৃত লাশটি দেখে আমার ঠিক এই কথা বলেই মনে পড়ছে। এ কোন পৃথিবীতে আমরা বাস করছি!


বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার মোকামতলা ইউনিয়নের ঢাকা-রংপুর মহা সড়কের মুরাদপুর নামক স্থানে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পূর্বপার্শ্বে নির্জন এলাকা থেকে অজ্ঞাতনামা বয়স আনুমানিক (৩০) এক যুবকের মৃত দেহ উদ্ধার করেছে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ। 


থানা সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকালে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মৃত দেহটি উদ্ধার করে। অজ্ঞাতনামা মৃত ব্যক্তির মৃত ব্যক্তির মুখ-মন্ডল চেনার কোন উপায় নেই বিকৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। বেশ কয়েক দিন আগে কোন এক স্থানে তাকে হত্যা করে মুরাদপুর এলাকায় মৃতদেহটি মাটি চাঁপা দিয়ে রাখে।  অজ্ঞাতনামা মৃত ব্যক্তির পড়নে জিন্সের প্যান্ট ও গায়ে চেক শার্ট পরিহিত ছিল। একপর্যায়ে  প্রতিকৃরি মাংসাশী পশু ( শিয়াল, কুকুর) গন্ধ পেয়ে মাটির নিচ থেকে মৃতদেহটি খাবারের উদ্দেশ্যে বের করে। 


এলাকাবাসী ঘটনাটি প্রত্যক্ষ করে মোকামতলা পুলিশ ফাঁড়িতে খবর দেয়। পরে পুলিশ ফাঁড়ির তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ  ইন্সপেক্টর  শাহিন ঘটনাটি শিবগঞ্জ থানাকে অবহিত করলে  সহকারী পুলিশ সুপার (শিবগঞ্জ) সার্কেল আরিফুল ইসলাম সিদ্দিকী ও  শিবগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ এসএম বদিউজ্জামান কালক্ষেপণ না করে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। 


এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ জানান, মৃত ব্যক্তির চেহারা বিকৃত হওয়ায় তার পরিচয় পাওয়া সম্ভব হয়নি। আমরা পরিচয় পাওয়ার জন্য মৃত দেহের পড়নের পোষাক ও আকৃতি জানিয়ে  কন্ট্রোল রুমে বার্তা পাঠিয়েছি।  প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে কয়েক দিন আগে অন্য কোথাও তাকে হত্যা করে মৃত দেহটি উক্ত স্থানে মাটি চাপা দিয়ে রাখে। এব্যাপারে শিবগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Marcadores:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

[blogger]

MKRdezign

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget