ব্যবসায়ীকে হত্যার অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান সহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

 



গাইবান্ধা প্রতিনিধি :

গাইবান্ধার গোবিন্ধগঞ্জে ধানক্ষেতে বস্তাভর্তি উদ্ধার সাধারন মাছ ব্যবসায়ী শিমুল মিয়াকে (২৫) হত্যার অভিযোগে গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। মামলায় বগুড়ার শিবগঞ্জের বিহার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মহিদুল ইসলামকে প্রধান করে নামীয় ১৩ ও অজ্ঞাত আরও কয়েকজনকে আসামি করা হয়।

মঙ্গলবার গত রাতে গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মেহেদী হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, নিহতের বড় ভাই রায়হান আলী বাদি হয়ে অজ্ঞাতসহ নামীয় ১৩ জনকে আসামি করে গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এজাহারে তার ভাই শিমুলকে হত্যার ঘটনা পুর্বপরিকল্পিত ও দ্বন্ধের জেরে সংঘটিত হয় বলে দাবি করেন। ইউপি চেয়ারম্যান মহিদুল ইসলাম ও তার সহযোগি রবিউল এবং মেনহাজসহ আসামিদের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে শিমুলের বিরোধ চলছিলো। সেই বিরোধে শিমুলকে অপহরণ করে পিটিয়ে পা ভাঙ্গা দেয়াসহ বস্তাবন্দী করে ধানক্ষেতে ফেলে রাখেন চেয়ারম্যান মহিদুলসহ তার সহযোগি আসামিরা। শিমুল সোমবার বগুড়ার একটি আদালতে হত্যা মামলায় হাজিরা দিতে যান। হাজিরা শেষে বাড়ি ফেরার পথে তাকে অপহরণ করা হয়।

ওসি আরও জানান, শিমুল মিয়া বগুড়ার শিবগঞ্জের বিহার ইউনিয়নের (মুন্নাপাড়া) গ্রামের আব্দুল মুতাল্লির ছেলে। ২৫ বছর বয়সী শিমুল মিয়া নানা অপরাধ কর্মকাণ্ডে জড়িত। এলাকায় সংঘবদ্ধ অপরাধ চক্রের নেতৃত্ব দিয়ে আসা শিমুলের বিরুদ্ধে শিবগঞ্জসহ বিভিন্ন থানায় চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, অগ্নিসংযোগ ও নারী শিশু নির্যাতনসহ অন্তত ১১টি মামলা রয়েছে। অপরাধ জগতের নেত্বত্ব ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি গুরুত্ব দিয়ে খতিয়ে দেখতে পুলিশের পাশাপাশি পুলিশ বুরো অব ইনভেস্টিগশন (পিবিআই) মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের তৎপরতা চলছে বলেও জানান ওসি।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

[blogger]

MKRdezign

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget