নেত্রী যাকে নৌকা প্রতিক দেবে আমরা তাকেই বিজয়ী করবোঃ কায়সার হাসনাত

 



সোনারগাঁ পৌরসভা মাঠে যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য সাবেক সাংসদ  আবদুল্লাহ আল-কায়সার সোনারগাঁ আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির উদ্দেশে বলেন, আহবায়ক কমিটির কাজ ছিল ঐক্যবদ্ধ হয়ে আওয়ামীলীগের কর্মিদের ঐক্যবদ্ধ করে ধরে রাখা। কিন্তু তারা দলের জন্য কোন কাজ করেন নি। তাদের ব্যাপারে সতর্ক হতে হবে আমাদের। জাতীয় পার্টিকে ইঙ্গিত করে বলেন সভা যেন সফল করতে না পারি জাতীয় পার্টির পেতাত্তারা মেয়র পদ প্রার্থীদের যুবলীগের আজকের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী সভায় আসতে বাধা দিয়েছে।

বর্তমান কমিটি সভাপতি নান্নু সাংগঠনিক সম্পাদক কামালসহ বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী পালন করেছি। যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা শেখ ফজলুল হক মনি ১৯৭২ সালে ১১নভেম্বর যুবলীগ প্রতিষ্ঠা করেন। দলের কর্মীদের উৎসাহ দিয়ে বলেন, যারা মামলা হামলা, নির্যাতন সহ্য করে আজও টিকে আছে আমরা তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ, আমি আওয়ামীলীগের নেতাদের দাওয়াত দিয়েছি। কিন্তু তারা আজ উপস্থিত হলেন না।

তিনি আরো বলেন, যাকেই নেত্রী নৌকা প্রতিক দিবে আমরা সবাই ঝাপিয়ে পড়ে নৌকার প্রার্থিকে বিজয়ী করবো। সোনারগাঁ আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটিকে উদ্দেশ্য করে কায়সার আরো বলেন, আহবায়ক কমিটির ওজন আপনারা বহন করতে পারেন না। আওয়ামী লীগ নেতারা জাতীয় পার্টির পেতাত্তা হয়েই আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করতে চায়। তাদের ব্যাপারে নজর রেখে আওয়ামীলীগের প্রত্যেকটি নেতাকর্মী ঐক্যবদ্ধ হয়ে পৌরসভা নির্বাচন করুন। তাদের সাংগঠনিক ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমি সংসদ সদস্য থাকা অবস্থায় সোনারগাঁ পৌরসভাকে সি গ্রেড থেকে বি গ্রেডে নিয়ে আসি। এমপি খোকাকে ইঙ্হিত করে কায়সার বলেন চৌরাস্তায় বসে জাতীয় পার্টির এমপি আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে হুমকি দেয়। আমি আপনাদের আগাম বার্তা দিয়ে গেলাম আমাদের নেতাকর্মীদের নিয়ে অনেক খেলা হয়েছে আর কাউকে খেলতে সুযোগ দেওয়া হবে না। সাংগঠনিক ভাবে বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


গত বুধবার ১১ নভেম্বর বিকালে সোনারগাঁ পৌরসভা মাঠে যুবলীগের ৪৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সোনারগাঁ পৌর যুবলীগের সভাপতি আসাদের সঞ্চালনায় সোনারগাঁ যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নুর সভাপতিত্বে মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু, সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান কোহিনূর ইসলাম রুমা, সাংবাদিক ও আওয়ামী লীগ নেতা মাহফুজুর রহমান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট ইকবাল হোসেন, সোনারগাঁ পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিল লায়ন আলী আকবর, যুবলীগ, আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা এ্যাভোকেট সাজেদ আলী মিয়ার ছেলে চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু বলেন, আমার বাবার আমল থেকে যড়যন্ত্র শুরু হয়েছে কোন কিছু করতে পারে নাই। বর্তমান ষড়যন্ত্রকারীরাও কিছু করতে পারেব না।

এ্যাডভোকেট ইকবাল সোনারগাঁ আওয়ামী লীগ বিভিন্ন নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, অনেক নেতা সকালে আওয়ামী লীগ, বিকালে জাতীয় পার্টি, রাতে বিএনপি-জামাত হয়ে যায়৷ তিনি বলিষ্ট কন্ঠে বলেন, আপনারা যারা মজিব কোর্ট পরে অন্য পার্টির সাখে আতাত করেন তারা মজিব কোর্ট খুলে ফেলুন।

সোনারগাঁ পৌর সভার মেয়র প্রার্থী গাজি মজিবুর রহমান বলেন, ষড়যন্ত্র চলছে, যারা বাইরে থেকে এসে আমাদের সাথে যড়যন্ত্র করছে, তারা পার পাবে না। আমরা কায়সার হাসনাতকে নিয়ে এগিয়ে যাব। পৌরবাসীর উদ্দেশ্য তিনি বলেন আমি মেয়র হলে সোনারগাঁ পৌরসভার সকল সন্ত্রাস নির্মুল করব, আপনাদের ভোটে নির্বাচিত হয়ে পৌরবাসীর সেবা চরতে চাই।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

[blogger]

MKRdezign

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget