সোনারগাঁওয়ের ইউএনও সাইদুল ইসলামের উদ্যোগে মায়াদ্বীপ হতে যাচ্ছে পর্যটনকেন্দ্র।।



রুবেল মিয়া, সোনারগাঁও সময়ঃ সোনারগাঁয়ের চারদিকে মেঘনা নদী বেষ্ঠিত চরাঞ্চল নুনেরটেক (মায়াদ্বীপ) কে পর্যটনকেন্দ্র করতে এলাকায় প্রায় ৭৫০ ফলদ, বনজ ও ফুলের গাছ রোপন করা হয়েছে। 
শনিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাইদুল ইসলাম এর উদ্যোগে স্থানীয় ২৬টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনকে সঙ্গে নিয়ে বৃক্ষ রোপন কর্মসূচির আয়োজন করেন।

জানা যায়, উপজেলার বারদী ইউনিয়নের নুনেরটেক মায়াদ্বীপ এলাকায় নদী থেকে বালু উত্তোলনের ফলে শত শত বিঘা ফসলী জমি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে পরিবেশের ভারসম্য হারিয়ে যাচ্ছে। তাই সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি ও বালু সন্ত্রাসীদের তান্ডব থেকে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের নুনেরটেকের মায়াদ্বীপকে সবুজের সমারোহ ও স্থানীয় বালু সন্ত্রাসীদের কবল থেকে রক্ষা করতে  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম উদ্যোগে ২৬টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে এলাকায় প্রায় ৭৫০ বনজ, ফলদ ও ফুলের গাছ রোপন করেন। এ সময় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলোর  প্রায়  ৩০০ সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

সংগঠনগুলোর মধ্যে রয়েছে, ব্লাড ফর নারায়ণগঞ্জ, স্বপ্নের সোনারগাঁ,পিরোজপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন,বারদী জনকল্যান সংস্থ্যা, সনমান্দী জনকল্যান সংস্থা, পরিবেশ রক্ষা উন্নয়ন সোসাইটি, আত্মপ্রকাশ, ব্রাইট সোনারগাঁ, মানবতার ডাক, বিকশিত সমাজ কল্যান সংস্থ্যা সহ ২৬টি সংগঠন।

স্থানীয় নুনেরটেক গ্রামের বাসিন্দা জানান,  নুনেরটেকের এই মায়াদ্বীপটি শত বছরেও কারো চোখে পড়েনি, সুযোগে বালু সন্ত্রাসীরা বালু কেটে বিলীন করে দিচ্ছে,  কিন্তু আমাদের এই ইউএনও পর্যটন কেন্দ্র করে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে  এলাকায় বৃক্ষরোপন করায় আমরা নুনেরটেকবাসী চির কৃতজ্ঞ।
 
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাইদুল ইসলাম জানান, মায়াদ্বীপ জায়গাটি অনেক সুন্দর একটি জায়গা। এত সুন্দর একটি জায়গা বৃক্ষ রোপনের ফলে পথিকরা যেমন ছায়া পাবে অন্যদিকে ভূমিদস্যুদের হাত থেকে এই দ্বীপটি রক্ষা পাবে। সোনারগাঁ উপজেলা একটি পর্যটন এলাকা যদি এই মায়াদ্বীপটিকেও রক্ষা করা যায় তাহলে পর্যটন এলাকা হিসেবে রূপ দেওয়া যাবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

[blogger]

MKRdezign

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget