সোনারগাঁওয়ের প্রতারকচক্রের অবৈধ গ্যাস বানিজ্য।

সোনারগাঁও সময় ডেস্ক
: নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ উপজেলার শম্ভুপুরা ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মোতালেব হোসেনের তত্ত্বাবধানে ভিটিকান্দি গ্রামে অবৈধ গ্যাস লাইন থেকে সিলিন্ডারে গ্যাস ভরে বিভিন্ন জায়গায় বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সরেজমিনে অনুসন্ধানে দেখা গেছে অবৈধ আবাসিক গ্যাস লাইন থেকে সিলিন্ডারে  রিফিল করে সোনারগাঁও  সহ দেশের  বিভিন্ন এলাকায়  বিক্রি করে আসছে। 

অবৈধভাবে গ্যাস সিলিন্ডারে গ্যাস রিফিলের ফলে যেকোন সময় এলাকায় দূর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন এলাকার 
সাধারণ মানুষ ।
তাই সাধারণ মানুষ উপজেলা প্রশাসনের কাছে জোড় দাবি জানাচ্ছে অনতিবিলম্বে এই অবৈধ গ্যাস সিলিন্ডারে রিফিল করে বিক্রি বন্ধ করে, হাজী মোতালেব হোসেন কে আইনের আওতায় আনা হোক।

 সাধারণ মানুষের চাহিদা পূরণে বিকল্প জ্বালানি হিসেবে প্রাকৃতিক গ্যাসের পরিবর্তে জনপ্রিয় হয়ে ওঠা এলপিজি এখন চরম হুমকিতে পড়েছে। ফলে ভোক্তারা যেমন প্রতারণার শিকার হচ্ছেন; একই সঙ্গে দেশে নামিদামি প্রতিষ্ঠানগুলোর সুনামও ক্ষুণ্ন হচ্ছে। খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানগুলোর এলপিজির সিলিন্ডার সংগ্রহ করে গ্যাস রিফিল করে প্রতারক চক্রটি বাজারে বিক্রি করছে। এর মধ্য দিয়ে অনিরাপদ হয়ে উঠছে এলপি গ্যাস শিল্প। বাসাবাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডারে দুর্ঘটনা বাড়ছে। অবৈধ এলপিজি ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন প্রকৃত ব্যবসায়ীরা।

সূত্র জানা যায়, এলপি গ্যাস বাজারজাত করার জন্য বিস্ফোরক অধিদপ্তরের অনুমতিপত্র নিতে হয়। কিন্তু গ্রামেগঞ্জে গজিয়ে উঠা ভূঁইফোড় বাজারজাতকারীদের এ ধরনের কোন অনুমতিপত্র নেই।

অনুসন্ধানে আরও   জানা গেছে, নিয়ম অনুযায়ী প্রতিটি সিলিন্ডারে ১২ কেজি করে গ্যাস থাকে। সাধারণত সরকারি পরিবেশক থেকে এসব গ্যাস সংগ্রহ করে তা খোলাবাজারে সরবরাহ করতে হয়।

এই বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, যদি কেউ অবৈধভাবে গ্যাস সিলিন্ডারে ভরে বিক্রি করে থাকে তাহলে তাকে আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তি প্রয়োগ করা হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

[blogger]

MKRdezign

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget