সোনারগাঁ উপজেলার দুধঘাটা ও মঙ্গলেরগাঁও রাস্তার বেহাল দশা,এলাকাবাসীর ক্ষোভ। সোনারগাঁও সময়

আশরাফুল আলম
রাস্তা নয় যেন ঢেউ খেলানো নদী? সেই নদী দিয়েই চলছে প্রতিদিন এ এলাকায় কয়েক হাজার মানুষ ও যাত্রী্বাহি গাড়ী। নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার দুধঘাটা ও মঙ্গলেরগাঁও এলাকাবাসী ক্ষোভ আশরাফুল আলম
রাস্তা নয় যেন ঢেউ খেলানো নদী? সেই নদী দিয়েই চলছে প্রতিদিন এ এলাকায় কয়েক হাজার মানুষ ও যাত্রী্বাহি গাড়ী। নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার দুধঘাটা ও মঙ্গলেরগাঁও এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন স্থানীয় এলাকার জনপ্রতিনিধিরা রাস্তায় চলাচল করার সময় মনে হয় চোখ বন্ধ করে রাখে। স্থানীয় এলাকাবাসীর অভিযোগ, দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়ণের মঙ্গলেরগাঁও বটতলা বাজার থেকে দুধঘাটা ও পাঁচানীগামী সড়কটির বটতলা বাজার এলাকার অনেকাংশে সম্প্রতি শীত মৌসুমের সামান্য বৃষ্টির কারনে পানি জমে খানা খন্দে, বেহাল দশায় মৃত্যু ফাঁদে পরিনত হয়েছে। পাঁচানীগামী সড়কের পাশে রয়েছে তাহেরপুর হাজী লাল মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, তাহেরপুর ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসা, পাঁচানী ইউনিয়ণ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, পাঁচানী দারুন নাজাত মাদ্রাসা, কয়েকটি কিন্ডারগার্টেন স্কুলসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। প্রতিদিন এসড়কে উপজেলা সদরে যাওয়া এবং মেঘনাঘাট এলাকায় অবস্থিত বিভিন্ন শিল্পকারখানায় কর্মরত শ্রমিক, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, সরকারী চাকুরিজীবি ও ব্যবসায়ীসহ হাজার হাজার মানুষের চলাচল। এসড়কে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, সরকারি চাকুরিজীবি ও কারখানায় কর্মরত শ্রমিক সহ সাধারন মানুষ আসা যাওয়ার সময় প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। এতে করে ওই এলাকার যাত্রীরা প্রতিদিন চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। পাঁচনী, চরগোয়ালদী, শান্তিনগর, খাসেরগাঁও, কোরবানপুর, মীরবহরেরকান্দী, শহিদনগর ও মঙ্গলেরগাঁও সহ স্থানীয় এলাকাবাসীর যাতায়াতের সুবিধার্থে এবং এলাকায় উৎপাদিত কৃষি পণ্যের বাজারজাত করা, রোগী নিয়ে সহজে উপজেলা সদর হাসপাতালে যাওয়া, মালবাহী বিভিন্ন পরিবহন ও ব্যবসায়ীদের দ্রুত বাজার হাটে পৌছানোর জন্য ও কারখানায় কর্মরত শ্রমিকেরা সহজে কর্মস্থলে যাওয়ার লক্ষে সড়কটি মঙ্গলেরগাঁও বটতলা বাজার থেকে পাঁচানী পর্যন্ত পাঁকা সড়ক নির্মাণ করা হয়। স্থানীয় এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে সম্প্রতি পাঁচানীগামী সড়কের কিছু অংশ পাকা করা হয়। কিন্তু মঙ্গলেরগাঁও বটতলা বাজারের পাশে দুধঘাটা ও পাঁচানীগামী সড়কের গুরুত্বপূর্ণ অংশ এখনো পর্যন্ত সংস্কারের অভাবে খানা খন্দে মৃত্যু ফাঁদে পরিনত হয়েছে। স্থানীয় এলাকাবাসী বিভিন্ন সময় জনপ্রতিনিধি বরাবর ও সড়ক জনপদের বিভিন্ন দপ্তরে বটতলা বাজারের পাশে রাস্তাটি সংস্কারের দাবি জানিয়ে আসলেও রাস্তাটি পুনঃসংস্কারের ব্যবস্থা গ্রহন করেনি কেউ। সম্প্রতি শীত মৌসুমের কয়েকদিনের বৃষ্টি ও বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টির কারনে কয়েক বছরে রাস্তাটি ভেঙ্গে খানা খন্দে, বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। এখন সড়কটি ভেঙ্গে পুরোপুরি চলাচল অনুপযোগী হয়ে মৃত্যু ফাঁদে পরিনত হয়েছে। নির্বাচন পূর্ববতী সময়ে জনপ্রতিনিধিরা রাস্তাটি পুনঃসংস্কারের জন্য কথা দিলেও কেউ কথা রাখেনি। পিরোজপুর ইউনিয়নের এলাকাবাসী স্থানীয় সাংসদ ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এবং এলজিইডির কর্তা ব্যক্তিদের কাছে এ ব্যাপারে বারবার আবেদন করে অবহিত করলেও তারা সংস্কারের কোন উদ্যোগ গ্রহন না করায়, চরম অবহেলিত এ সড়কটি দিয়ে চলাচলরত পথচারীদের দূর্ভোগ আজ চরমে পৌঁছেছে।

মঙ্গলেরগাঁও এলাকার মহিলা ইউপি সদস্য মোর্শেদা বেগম জানান, বটতলা বাজারের পাশে খানা খন্দে ভরা রাস্তাটি পুনঃসংস্কারের জন্য স্থানীয় সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা ও ইউনিয়ণ পরিষদ পরিষদ চেয়ারম্যানকে অবগত করেছি। আশা করি রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার কাজ শুরু হবে। বর্তমান নারায়ণগঞ্জ-৩ সোনারগাঁ আসনের সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা এবং পিরোজপুর ইউনিয়ণ পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের কাছে স্থানীয় এলাকাবাসীর প্রাণের দাবি। এলাকাবাসীর যাতায়াতের সুবিধার্থে তারা যেন মঙ্গলেরগাঁও বটতলা বাজার থেকে দুধঘাটা ও পাঁচানীগামী সড়কটির গুরুত্বপূর্ণ বাকী অংশ পুনঃরায় সংস্কারের উদ্যোগ গ্রহন করেন।র জনপ্রতিনিধিরা রাস্তায় চলাচল করার সময় মনে হয় চোখ বন্ধ করে রাখে। স্থানীয় এলাকাবাসীর অভিযোগ, দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়ণের মঙ্গলেরগাঁও বটতলা বাজার থেকে দুধঘাটা ও পাঁচানীগামী সড়কটির বটতলা বাজার এলাকার অনেকাংশে সম্প্রতি শীত মৌসুমের সামান্য বৃষ্টির কারনে পানি জমে খানা খন্দে, বেহাল দশায় মৃত্যু ফাঁদে পরিনত হয়েছে। পাঁচানীগামী সড়কের পাশে রয়েছে তাহেরপুর হাজী লাল মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, তাহেরপুর ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসা, পাঁচানী ইউনিয়ণ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র, পাঁচানী দারুন নাজাত মাদ্রাসা, কয়েকটি কিন্ডারগার্টেন স্কুলসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। প্রতিদিন এসড়কে উপজেলা সদরে যাওয়া এবং মেঘনাঘাট এলাকায় অবস্থিত বিভিন্ন শিল্পকারখানায় কর্মরত শ্রমিক, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, সরকারী চাকুরিজীবি ও ব্যবসায়ীসহ হাজার হাজার মানুষের চলাচল। এসড়কে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, সরকারি চাকুরিজীবি ও কারখানায় কর্মরত শ্রমিক সহ সাধারন মানুষ আসা যাওয়ার সময় প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। এতে করে ওই এলাকার যাত্রীরা প্রতিদিন চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। পাঁচনী, চরগোয়ালদী, শান্তিনগর, খাসেরগাঁও, কোরবানপুর, মীরবহরেরকান্দী, শহিদনগর ও মঙ্গলেরগাঁও সহ স্থানীয় এলাকাবাসীর যাতায়াতের সুবিধার্থে এবং এলাকায় উৎপাদিত কৃষি পণ্যের বাজারজাত করা, রোগী নিয়ে সহজে উপজেলা সদর হাসপাতালে যাওয়া, মালবাহী বিভিন্ন পরিবহন ও ব্যবসায়ীদের দ্রুত বাজার হাটে পৌছানোর জন্য ও কারখানায় কর্মরত শ্রমিকেরা সহজে কর্মস্থলে যাওয়ার লক্ষে সড়কটি মঙ্গলেরগাঁও বটতলা বাজার থেকে পাঁচানী পর্যন্ত পাঁকা সড়ক নির্মাণ করা হয়। স্থানীয় এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে সম্প্রতি পাঁচানীগামী সড়কের কিছু অংশ পাকা করা হয়। কিন্তু মঙ্গলেরগাঁও বটতলা বাজারের পাশে দুধঘাটা ও পাঁচানীগামী সড়কের গুরুত্বপূর্ণ অংশ এখনো পর্যন্ত সংস্কারের অভাবে খানা খন্দে মৃত্যু ফাঁদে পরিনত হয়েছে। স্থানীয় এলাকাবাসী বিভিন্ন সময় জনপ্রতিনিধি বরাবর ও সড়ক জনপদের বিভিন্ন দপ্তরে বটতলা বাজারের পাশে রাস্তাটি সংস্কারের দাবি জানিয়ে আসলেও রাস্তাটি পুনঃসংস্কারের ব্যবস্থা গ্রহন করেনি কেউ। সম্প্রতি শীত মৌসুমের কয়েকদিনের বৃষ্টি ও বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টির কারনে কয়েক বছরে রাস্তাটি ভেঙ্গে খানা খন্দে, বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। এখন সড়কটি ভেঙ্গে পুরোপুরি চলাচল অনুপযোগী হয়ে মৃত্যু ফাঁদে পরিনত হয়েছে। নির্বাচন পূর্ববতী সময়ে জনপ্রতিনিধিরা রাস্তাটি পুনঃসংস্কারের জন্য কথা দিলেও কেউ কথা রাখেনি। পিরোজপুর ইউনিয়নের এলাকাবাসী স্থানীয় সাংসদ ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এবং এলজিইডির কর্তা ব্যক্তিদের কাছে এ ব্যাপারে বারবার আবেদন করে অবহিত করলেও তারা সংস্কারের কোন উদ্যোগ গ্রহন না করায়, চরম অবহেলিত এ সড়কটি দিয়ে চলাচলরত পথচারীদের দূর্ভোগ আজ চরমে পৌঁছেছে।
মঙ্গলেরগাঁও এলাকার মহিলা ইউপি সদস্য মোর্শেদা বেগম জানান, বটতলা বাজারের পাশে খানা খন্দে ভরা রাস্তাটি পুনঃসংস্কারের জন্য স্থানীয় সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা ও ইউনিয়ণ পরিষদ পরিষদ চেয়ারম্যানকে অবগত করেছি। আশা করি রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার কাজ শুরু হবে। বর্তমান নারায়ণগঞ্জ-৩ সোনারগাঁ আসনের সাংসদ লিয়াকত হোসেন খোকা এবং পিরোজপুর ইউনিয়ণ পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের কাছে স্থানীয় এলাকাবাসীর প্রাণের দাবি। এলাকাবাসীর যাতায়াতের সুবিধার্থে তারা যেন মঙ্গলেরগাঁও বটতলা বাজার থেকে দুধঘাটা ও পাঁচানীগামী সড়কটির গুরুত্বপূর্ণ বাকী অংশ পুনঃরায় সংস্কারের উদ্যোগ গ্রহন করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

[blogger]

MKRdezign

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget