মিরপুর বস্তিতে ভয়াবহ আগুন।



রাজধানীর ঢাকার মিরপুরে একটি বস্তিতে ভয়াবহ অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটেছে। ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা ২২ মিনিটে মিরপুর-৭ নম্বর সেকশনের রূপনগর থানাধীন চলন্তিকা মোড় এলাকার একটি বস্তিতে এ আগুন লাগে। রাত পৌনে ১০টা পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে পারেনি ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

এদিকে, আগুনের পর ওই এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। বাসাবাড়ির সব মানুষ রাস্তায় নেমে এসেছে। ফায়ার সার্ভিসের সঙ্গে পুলিশ ও স্থানীয়রাও আগুন নিয়ন্ত্রণে সাধ্য মতো চেষ্টা করছে। তবে পানি সঙ্কটের কারণে আগুন নেভাতে বেগ পেতে হচ্ছে। এছাড়া আগুন আশপাশের ভবনে ছড়িয়ে পড়ছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার এরশাদ বলেন, আগুনের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভাতে চেষ্টা চালায়। কিন্তু রাত পৌনে ১০টা পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি। প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঝিলপাড়ের বস্তির চারদিকে বহুতল ভবন থাকার কারণে ফায়ার সার্ভিসের গাড়িগুলো ঘটনাস্থলে ঠিকভাবে পৌঁছাতে পারছে না।

এ ছাড়া বস্তির পাশে গাড়ি চলাচলের জন্য কোনো রাস্তাও নেই। এছাড়া বাতাসের কারণে আগুন বহুতল ভবনের দিকে আগুন ছড়িয়ে পড়ছে। এ কারণে ভবনের বাসিন্দারা দিগিবিদিক ছোটাছুটি করছে।
ঝিলপাড় বস্তির বাসিন্দারা বলেন, এখানে হাজারখানিক ঘর রয়েছে। ভেতরে অনেক লোক আটকা পড়ে আছে। অনেকের সাথে আমরাও ভেতরে ছিলাম। অনেক কষ্টে বেরিয়ে এসেছি।

এক বাসীন্দা বলেন, ঈদের কারণে বস্তির বেশিরভাগ ভাড়াটিয়া ছিল না। সন্ধ্যার পর হঠাৎ বস্তিতে আগুন লাগে। ইতোমধ্যে বস্তির সব ঘর প্রায় পুড়ে গেছে। বস্তি ঘেঁষেই অনেকগুলো বহুতলা ভবন রয়েছে। একটি দোতালা ভবনেও আগুন ছড়িয়ে পড়েছে। তবে ভেতরে কেউ আটকা পড়েছে কিনা, সে বিষয় এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

আরেক বাসিন্দা বলেন, বস্তির পশ্চিম পাশেই আমার বাসা। আমি আগুন-আগুন চিৎকার শুনে বাইরে বের হই। আগুন নেভাতে চেষ্টা করেও পারিনি। এমন আগুন জীবনেও দেখিনি। ঘর থেকে কিছু বের করতে পারেননি বলে তিনি জানান।

Marcadores:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

[blogger]

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

merrymoonmary থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget