watch live
youtube
wb_sunny

এই মুহুর্তে

সোনারগাঁওয়ে শ্রমিকদের স্বার্থরক্ষা ও বালু উত্তোলনের গডফাদারদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন।।

সোনারগাঁওয়ে শ্রমিকদের স্বার্থরক্ষা ও বালু উত্তোলনের গডফাদারদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন।।

 





সোনারগাঁও প্রতিনিধিঃ সোনার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে শ্রমিকদের স্বার্থ সুরক্ষা, নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সন্ত্রাসীদের দাবী জানিয়ে মানববন্ধন করেছে উপজেলার বিভিন্ন সংগঠন।
  শনিবার (২৯ জুন)   কালের কন্ঠ শুভ সংঘ সোনারগাঁও উপজেলা শাখার উদ্যেগে গ্র‍্যাজুয়েট ফাউন্ডেশন সহ বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানারে   উপজেলা চত্বরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, নদী থেকে বালু উত্তোলন, নদীতে বালু ভরাটের মূল হোতাদের সাথে প্রশাসনের সু-সম্পর্ক রয়েছে। তাই তারা লোক দেখানো অভিযান চালিয়ে নদী থেকে বালু উত্তোলন, নদী ও খাসজমি ভরাট বন্ধে মূল হোতাদের গ্রেফতার না করে অসহায় খেটে খাওয়া শ্রমিকদের আটক করে মোবাইল কোট বসিয়ে ৬মাস থেকে ১বছরের শাস্তি দিচ্ছে। ৩০০-৫০০ টাকার দৈনিক হাজিরায় কাজ করা শ্রমিকদের অনেকের বাড়ি বরিশাল, কিশোরগঞ্জ সহ দেশের বিভিন্ন জেলায়। এলাকায় কাজ না থাকায় অনাহারি মানুষগুলো সন্তানদের নিয়ে একটু ভালো থাকার জন্য কাজ করতে এসে ফাঁদে পড়েন, বালু সন্ত্রাসের শ্রমিক সংগ্রহকারী দালালের খপ্পরে। ভালো থাকার আশায় তারা ড্রেজারে কাজ শুরু করেন। এতে খেটে খাওয়া দিনমজুরদের প্রশাসন গ্রেফতার করে জেল জরিমানা করে এক একটি পরিবারকে ধ্বংস করে দিচ্ছে   ।
উল্লেখ্য যে, আনন্দ বাজার সংলগ্ন মেঘনা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সময় মূল হোতা ঈসমাইল মেম্বারের ড্রেজার থেকে ৭জন এবং চর রমযান সোনাউল্লাহ মৌজায় অবৈধভাবে নদী ভরাটের অপরাধে ভ’মিদস্যু শাহ জালালের ড্রেজার থেকে ২১ জন শ্রমিককে আটক করে। ঈসমাইল মেম্বারের ৪ জন শ্রমিককে ১ বছর,তিন জনের ১ মাস এবং শাহ জালালের ২১ জন শ্রমিককে ৬মাস কারাদন্ড প্রদান করে ভ্রাম্যমান আদালত।
বক্তারা মানববন্ধনে দাবী করেন, ড্রেজার শ্রমিক নয় মূল হোতাদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দিন। তাদের ব্যবহৃত ড্রেজার, বাল্কহেট আটক না করলে বালু সন্ত্রাস বন্ধ হবে না। শ্রমিকদের স্বার্থ সুরক্ষা এবং নদী রক্ষায় কঠোর শাস্তি প্রদান করার দাবী জানান।

Tags

সাবসক্রাইব করুন!

সবার আগে নিউজ পেতে সাবসক্রাইব করুন!

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন