সোনারগাঁও সময়

সদা সত্যের পথে...

সোনারগাঁও সময়

 


Latest Post




নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যের বিরোধিতাকারীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতৃবৃন্দ।

২৯ নভেম্বর রবিবার দুপুর ১২ টা ৩০ মিনিটে সোনারগাঁও প্রেসক্লাবের সামনে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের শতাধিক নেতাকর্মীর উপস্তিতিতে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করা হয়।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য বাংলাদেশে স্থাপন করা হবে এবং যারা এর বিরোধিতা করবে তাদেরকে হুশিয়ারী দিয়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সোনারগাঁ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মোঃ মাসুদ রানা মানিক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম শামীম, শম্ভুপরা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম জনি, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সজিব, জামপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি জাকির হোসেন জাকু, সাংগঠনিক সম্পাদক হালিম ভূঁইয়া, পিরোজপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জসিম, বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়ন সভাপতি মোঃ ফারুক হোসেন,কাঁচপুর ইউনিয়নের সাধারনত সম্পাদক মোঃ বাবুল হোসেন, নওগাঁ ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সারোয়ার পারভেজ ও সনমান্দী ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।


 


নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:                                         সোনারগাঁওয়ে দিনের পর দিন তুচ্ছ ঘটনায় হামলার ঘটনা বেড়েই চলেছে। ঘুড়ি খেলাকে কেন্দ্র করে বিগত প্রায় ৬মাস আগের তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক কলেজ ছাত্রকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করার অভিযোগ উঠেছে।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত কলেজ ছাত্রের নাম মোঃ ফাহিম(২৩) সে সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চান্দেরচক এলাকার মনির হোসেনের ছেলে।


এই নেক্কারজনক ঘটনায় আহত কলেজ ছাত্রের মা মাজেদা বেগম বাদী হয়ে সোনারগাঁও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন,গত প্রায় ৬মাস পূর্বে আমাদের এলাকায় ঘুড়ি খেলার সময় এলাকার কিছু যুবকদের সাথে পিরোজপুর এলাকার বিবাদী ১.নীরব (২২) ও মামুন (২৬) ও অজ্ঞাত ৭/৮জনের ঝগরা হয়। সেই তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আজ আমার ছেলে ফাহিমকে রাস্তায় চলাচলরত অবস্থায় পথরোধ করে ছেনদা,চাপাতি,লোহাররড,লাঠি ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করে।এসময় তারা গ্যাসের লাইট দিয়ে মুখে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিতে চাইলে বিভিন্ন অংশে পু্ড়ে যায়। এসময় তারা আমার ছেলের কাছ থেকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ১লক্ষ ৫০হাজার টাকা,হাত খরচের ৯৫০টাকা,একটি মোবাইল ও একটি স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে পথচারীদের সহায়তায় আমার ছেলেকে উদ্ধার করে সোনারগাঁও উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করি।

বর্তমানে সে মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে শুয়ে আছে।

এ বিষয়ে সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আসামীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে ২য় দফায় করোনা ঝুঁকি থেকে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় অগ্নিবীণা যুব ও ক্রীড়া সংঘের পক্ষ থেকে সাধারণ মানুষ,রিক্সা চালক ও পথচারীদের হ্যান্ডস্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ করা হয়। ২৮ নভেম্বর শনিবার বিকাল ৪ টায় এ মাস্ক বিতরণ করা হয়। 

বিশ্বের বেশকিছু দেশে ইতিমধ্যে ২য় দফায় করোনার প্রকোপ দেখা দিয়েছে । অনেক দেশ লকডাউনে চলে গেছে। বাংলাদেশে শীতের প্রকোপ বৃদ্ধি পেলে করোনা ও বৃদ্ধি পাবে বিশেষজ্ঞরা এমনই ধারণা করছে । গত কয়েকদিন দেশের চিত্র সেটাই ইঙ্গিত করছে। তাই সেই লক্ষে আমাদের সবার সচেতন থাকতে হবে। 

অগ্নিবীণা ক্রীড়া ও যুব সংঘের সভাপতি সামছুজোহা রাসেল বলেন, আমাদের এই অগ্নিবীণা যুব ও ক্রীড়া্ সংঘটি খেলাধূলার পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ড করে আসছে। আমরা কিছুদিন পর ছিন্নমূল ও অসহায় শিশুদের শীত বস্ত্র বিতরণ করবো। যেহেতু সামনে শীত আর এ বছর আমাদের বাড়তি ভোগান্তি হিসেবে করোনা ভাইরাস মোকাবিলা করতে হবে । আমরা যদি যার যার অবস্থান থেকে এগিয়ে আসি তাহেল আমাদের এ্ই মহামারি মোকাবেলা করা অনেক সহজ হবে।

অগ্নিবীণা যুব ও ক্রীড়া্ সংঘের সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান বলেন, আমরা সাধারণ মানষের পাশে দাঁড়াতে চাই আর সেই লক্ষেই আমাদের অগ্নিবীণা যুব ও ক্রীড়া সংঘের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সামাজির কাজ কর্ম অব্যাহত রাখবো। আমাদের দেখে যদি কেউ অনুপ্রানিত হয়ে মানুষের সেবায় এগিয়ে আসে সেটাই হবে আমাদের সবচেয়ে বড় পাওয়া । 

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অগ্নিবীণা যুব ও ক্রীড়া্ সংঘের সিনিয়র সদস্য দেশবার্তা৭১.কম এর প্রকাশক মোঃ আব্দুস সালাম সুজন, অগ্নিবীণা যুব ও ক্রীড়া সংঘের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ আফজাল হোসেন,অগ্নিবীণা যুব ও ক্রীড়া সংঘের সিনিয়র সহ-সভাপতি নাইম, সহ-সভাপতি নাজমুল হাসান রাজ, সাংগঠনিক সম্পাদক আমির, সোনারগাঁও প্রেস ক্লাবের দপ্তর বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আনিস, দেশের গর্জন পত্রিকার সম্পাদক মোঃ কামাল, অগ্নিবীনা যুব ও ক্রীড়া সংঘের সদস্য টিপু, মাহবুব প্রমূখ।

 



নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে মসজিদের লাইট জালানোকে কেন্দ্র করে  সাংবাদিক শাহজালালের উপর হামলা চালিয়েছে প্রতিপক্ষরা।

 (২৮ নভেম্বর)  শনিবার সকালে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চেঙ্গাকান্দি দক্ষিণ পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত সাংবাদিক শাহজালালকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে অবস্থা আশংকাজনক দেখে পরবর্তীতে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে আহত সাংবাদিক শাহজালালের পিতা হাজী আলম চাঁন বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ঘটনায় সোনারগাঁও থানা পুলিশ সিরাজুল মোল্লা নামে একজনকে আটক করেছে।

থানায় দায়ের করা অভিযোগ থেকে জানা গেছে, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চেঙ্গাকান্দি দক্ষিণ পাড়া গ্রামের মৃত. সামসুল হক সরকারের ছেলে সিরাজুল মোল্লা, মজু মোল্লা, সিরাজুল মোল্লার ছেলে সোহাগ, মৃত. হাশেমের ছেলে আঃ সামাদ ও মোবারক হোসেন, সামসুল হকের ছেলে জসিম, রাফি ও আঃ সামাদের ছেলে নাদিমসহ আরও ৬/৭ জন মিলে পূর্ব শত্রুতাও মসজিদে লাইট জালানোকে কেন্দ্র করে আজ সকালে চেঙ্গাকান্দি বাজারে সাংবাদিক শাহজালালের চাউলের দোকানে গিয়ে দেশীয় অস্ত্র দা, লাঠি ও কুড়াল নিয়ে হামলা চালিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করে। এক পর্যায়ে হামলাকারীরা সাংবাদিক শাহজালালের দোকানে প্রবেশ করে দোকানের ক্যাশে থাকা নগদ ৪ লক্ষ টাকা লুট করে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় ৮ জনের নাম উল্লেখ করে আরো ৬/৭ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে সোনারগাঁও থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।


এব্যাপারে আহত শাহ জালালের স্ত্রী সালমা বেগম বলেন, আজ সকালে মসজিদে লাইট জালানোকে কেন্দ্র করে আমার স্বামীর সাথে একই এলাকার জসিমের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে জসিমের লোক জন একত্রি হয়ে আমার স্বামীর চাউলে দোকানে গিয়ে হামলা চালিয়ে তাকে হত্যার উদ্যোশে পিটিয়ে মারাত্নক ভাবে আহত করে।

আহত শাহ জালাল দৈনিক আমাদের নতুন সময়ের সোনারগাঁও উপজেলা প্রতিনিধি।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় একটি অভিযোগ গ্রহন করা হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


 



নিজ মাতৃভূমি মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর  উপজেলার হাজারো নেতা-কর্মি তাদের প্রিয় নেতা, যুব সমাজের আইকন, মুন্সিগঞ্জের কৃতি সন্তান বাংলাদেশ ছাত্রলীগ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক, সাবেক সহ-সভাপতি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটি ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটি'র নব-নির্বাচিত সাংগঠনিক সম্পাদক মশিউর রহমান চপলকে ভালোবাসা ও ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়ে সিক্ত করলেন। আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগে স্থান করে নেওয়া নবনির্বাচিত সাংগঠনিক সম্পাদক জহির উদ্দিন খসরুকেও সংবর্ধনা দিতে কার্পণ্য করেনি মুন্সীগঞ্জবাসী। 

উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মশিউর রহমান চপল  আবেগাপ্লুত কণ্ঠে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের আস্থার শেষ ঠিকানা, দেশরত্ন, জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান এবং বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের  চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সেক্রেটারি মাইনুল ইসলাম খান নিখিল'র প্রভি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাকে আগামীর 'উন্নত বাংলাদেশ' হিসেবে বিশ্বের দরবারে দাঁড় করানোর জন্য বাংলার গরিব-দুঃখী মানুষের আস্থার শেষ ঠিকানা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা দিন-রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। আজকের এই বাংলাদেশকে আগামীর উন্নত বাংলাদেশ হিসেবে বিনির্মাণ করতে হলে প্রয়োজন দক্ষ নেতৃত্বের, প্রয়োজন বঙ্গবন্ধুর আদর্শে লালিত উন্নত যুব-সমাজের। সৎ, উন্নত ও প্রকৃত মুজিব সৈনিকদের খুঁজে বের করে সংগঠনকে আরো বেশি গতিশীল করার জন্য আজ আমার ওপর যে দায়িত্ব অর্পিত হয়েছে, আমার মেধা, শ্রম, যোগ্যতা, অভিজ্ঞতার সবটুকু দিয়ে আমি তা পালন করে যাবো ইনশাআল্লাহ।

 




২৭ নভেম্বর শুক্রবার বিকেলে পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে নৌকা প্রতীকের পক্ষে নির্বাচনী গণসংযোগ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক নাসরিন সুলতানা ঝরা। তার এই নির্বাচনী গণসংযোগে পুরুষের পাশাপাশি শতাধিক নারী অংশগ্রহণ করেন। একই সঙ্গে বিভিন্ন ওয়ার্ডের নারী নেত্রীরাও নাসরিন সুলতানা ঝরার নির্বাচনী গণসংযোগে অংশগ্রহণ করেন।


এ সময় নাসরিন সুলতানা ঝরা বলেন, পৌরসভার প্রতিটি এলাকার বেকার নারীদের সাবলম্বী করতে সব ধরণের উদ্যোগ গ্রহণ করবো। পৌরসভার অনেক মা বোন রয়েছেন যারা বেকার সময় কাটান। সেই বেকার সময়ে যাতে নারীরাও আয় করতে পারে,আমি মেয়র নির্বাচিত হলে সেই ব্যবস্থা করবো ইনশাহআল্লাহ। ২৭ নভেম্বর শুক্রবার বিকেলে পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে নৌকা প্রতীকের পক্ষে নির্বাচনী গণসংযোগ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও বদরুন্নেসা কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নাসরিন সুলতানা ঝরা। ওই সময় তার এই নির্বাচনী গণসংযোগে পুরুষের পাশাপাশি বিভিন্ন ওয়ার্ডের নারী নেত্রীরাও অংশগ্রহণ করেন। ওই সময় ৬নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকার ঘরে ঘরে গিয়ে নারীদের কাছে নৌকা প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করেন। ওই সময় নাসরিন সুলতানা ঝরা বলেন, আমি যেনো নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পাই সেজন্য আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন। আর নৌকা প্রতীক যেই পাক আপনারা সকলে সরকারের উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকা প্রতীকে ভোট দিবেন।



নাসরিন সুলতানা ঝরার গণসংযোগে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি আসাদ, সহ সভাপতি অপু সারোয়ার, পৌরসভা যুবলীগের সদস্য হারুন জয়, ৪ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি উজ্জ্বল, ৫ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি মো.জসীম, ৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মজিবুর, ৮ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি আমিনুল, ৯ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি আব্দুর রউফ, ৯ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক শ্যামল, পৌরসভা সেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি মজিবুর রহমান, শাহাদাত, আল আমিন, তপন, ফরহাদ, পাভেল, নবীর হোসেন, আলমগীর, শান্ত, গাজী তোফায়েল, আওয়ামীলীগ নেতা বাচ্চু, মিন্টুসহ আরো অসংখ্য আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগের নেতৃবন্দসহ এলাকার স্থানীয় মুরুব্বীগণ।



 


নিজস্ব প্রতিনিধিঃ   

জাতীয় পার্টির অতিরিক্ত মহাসচিব, জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি এবং নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁও) আসনের এমপি লিয়াকত হোসেন খোকার বড় বোন প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা বাবুল আহাম্মেদ ভূইয়ার সহধর্মিনী ” খালেদা খানম ডলি ও মেয়ে সানজিদার রুহের মাগফেরাত কামনায় ।  বারদী ইউনিয়নের ৩নংওয়ার্ডের মেম্বার পদ প্রার্থী মোঃ শাকিল আহম্মেদ। গতকাল শুক্রবার  সন্ধায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেন,এসময় উপস্থিত ছিলেন মাওলানা আঃকাদির,বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ সাদেকুর রহমান, কাজল ভুইয়া,আনোয়ার হোসেন ব্যবসায়ী বারদী বাজার,  মনির হোসেন,  মোঃসুলমান,আঃজব্বার,মতেলব মিয়া, দেলোয়ার হোসেন,ওবায়দুল হক,মোঃসোহেল,মোঃশাকিল,বিল্লল,হুমায়ুন কবির প্রমুখ।  আলগীরচর গ্রামের  গণ্যমান্য ব‍্যক্তি বর্গ  উপস্থিত ছিলেন।   মরহুমার রুহের মাগফেরাত কামনা শেষে  মুসুল্লীদের মাঝে তবারক বিতরন করা হয়।

 



নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁও পৌরসভার দৈলেরবাগ এলাকা আজ(২৭ নভেম্বর)  শুক্রবার দুপুর আনুমানিক ১.৩০ সময় ফারুফ (৬) নামে এক শিশুকে কাঁদতে দেখে স্থানীয় এলাকাবাসী তাকে তার নাম ঠিকানা জিজ্ঞেস করলে সে তার নাম মারুফ বাবার নাম আমির হোসেন ছাড়া আর তেমন কিছুই বলতে পারেনা,পরে শিশু মারুফকে সোনারগাঁও থানার   উপপরিদর্শক এস আই পংকজ সরকার এর হেফাজতে রেখে আসে,এরপর অনলাইন নিউজ পোর্টাল সোনারগাঁও সময়ে নিউজ প্রকশের পর শিশু মারুফের এলাকা পিরোজপুর ইউনিয়নের কান্দাপাড়া এলাকা থেকে এক ব্যাক্তি ফোন করে পরিচয় নিশ্চিত করে,পরে তার মামা আলামীন ও তার বাবা আমির হোসেন সোনারগাঁও থানায় এসে এস আই পংকজ সরকারের কাছ থেকে তাকে বুঝে নিয়ে যায়,এস আই পংকজ সরকার সোনারগাঁও সময়'কে জানান,শিশু মারুফ দেখে আমার অনেক মায়া লেগে যায় পরে থানায় তাকে আমার সাথে বসিয়ে রাখি,এবং বিভিন্ন যায়গায় তার পরিবারের সন্ধানের জন্য খোঁজ নিতে থাকি,এরপর তার পরিবারের লোকজন আসলে তাকে তার পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেই,

যোগাযোগের ফর্ম

নাম

ইমেল *

বার্তা *

Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Javascript DisablePlease Enable Javascript To See All Widget